শিরোনাম :
সখীপুরে কলার বাগানের ভেতর বনজ চারা রোপন করে বনবিভাগের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ। নাগরপুরে পানিতে ডুবে দুই চাচাতো ভাইয়ের মৃত্যু টাঙ্গাইলে দুই ডোজ টিকা নিয়েও করোনায় চিকিৎসকের মৃত্যু সখীপুরে কুকুরের দুধ খেয়ে বড় হচ্ছে বিড়ালের বাচ্চা সখীপুরে মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে মেয়ের মৃত্যু : এলাকায় শোকের ছায়া দেশে করোনায় একদিনে আরো ২৪৬ জনের প্রাণহানি! আক্রান্ত প্রায় ১৬ হাজার নাগরপুরে ডাকাত আতঙ্কে মসজিদে মাইকিং! নির্ঘুম রাত কাটে এলাকাবাসীর টাঙ্গাইলে একদিনে করোনায় আরো ৪ জনের প্রাণহানি! আক্রান্ত ২৪৭ বিএনপির ভিশন ছিল চাঁদাবাজি আর লুটপাট করা: ওবায়দুল কাদের অবসরে সখীপুর থানা পুলিশের সাজানো গাড়িতে বাড়ি ফিরলেন কনস্টেবল জাহিদ
সখীপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থী ৫দিন ধরে নিখোঁজ। বাবার অভিযোগ অপহরণ। থানা নিয়েছে জিডি।

সখীপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থী ৫দিন ধরে নিখোঁজ। বাবার অভিযোগ অপহরণ। থানা নিয়েছে জিডি।

প্রতিনিধি, সখীপুর, টাঙ্গাইল
টাঙ্গাইলের সখীপুরে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর চুরি হওয়া স্মার্টফোনের পেছনে ছুটতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার থেকে পাঁচদিন ধরে ওই শিক্ষার্থী নিখোঁজ রয়েছেন। গত বুধবার ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে সখীপুর থানায় আসামির নাম দিয়ে একটি অপহরণ মামলা করলেও পুলিশ ওই মামলাটিকে সাধারণ ডায়রি (জিডি) হিসেবে নথিভূক্ত করেছেন। সখীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ছাইফুল ইসলাম বলেন, সে অপহৃত হয়নি। হারিয়ে যাওয়া শিক্ষার্থীকে খুঁজে বের করার জোর চেষ্টা চলছে।

নিখোঁজ হওয়া ওই শিক্ষার্থীর নাম আখতারুজ্জামান রাব্বী (১৬)। সে উপজেলার শোলাপ্রতিমা গ্রামের আবুল কালাম আজাদের ছেলে। রাব্বী এবার উপজেলার কাহারতা উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষার্থী।
ওই শিক্ষার্থীর বাবার অভিযোগ, তাঁর ছেলে হারিয়ে যায়নি। তাঁর আপন ভাগনে সাজ্জাত হোসেন (২৮) একজন চিহিৃত অপরাধী। সে আমার ছেলেকে কৌশলে অপহরণ করেছে। থানায় অপহরণ মামলা করতে গেলে অভিযোগ না নিয়ে জিডি নেয়। পাঁচদিন হয়ে গেলেও আমার ছেলেকে পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি।

ওই শিক্ষার্থীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত রোববার (২৭ জুন) টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার দরানিপাড়া গ্রামের নাজিম উদ্দিনের ছেলে সাজ্জাত হোসেন (২৮) সখীপুরে মামার বাড়ি বেড়াতে আসে। নিখোঁজ আখতারুজ্জামান রাব্বী সম্পর্কে সাজ্জাতের আপন মামাতোভাই। সাজ্জাতের বিরুদ্ধে সখীপুর থানায় তিনটি ও মির্জাপুর থানায় তিনটিসহ ছয়টি চুরি-ডাকাতির মামলা থাকার অভিযোগ রয়েছে। সাজ্জাত ওইদিন দুপুরে খাবার খাওয়ার পর বেলা তিনটার দিকে হঠাৎ কাউকে কিছু না বলে চলে যায়।

চলে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর তাঁরা জানতে পারে সাজ্জাত তাঁর মামা বাড়ি থেকে রাব্বীর স্মাটফোন ও আলমারি ভেঙে পাঁচ হাজার টাকা ও সামান্য কিছু স্বর্ণালঙ্কার চুরি করে নিয়ে গেছে। পরের দিন রাব্বী বাড়ির পাশের একটি দোকান থেকে রাব্বীর চুরি হয়ে যাওয়া ফোনে কল করলে সাজ্জাত হোসেন ফোনটি ধরেন। তাঁকে তাঁর বাড়ি মির্জাপুরে এসে ফোনটি নিয়ে যেতে বলে। পরে রাব্বী ওই চুরি হওয়া ফোনের পেছনে ছুটতে গিয়ে নিখোঁজ হন। রাব্বীর বাবা সাজ্জাতের বাড়িতে ফোন দিলে তাঁরা বলেন, রাব্বী এ বাড়িতে আসেননি। এরপরে রাব্বী ও সাজ্জাতকেও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।
সাজ্জাত হোসেনের বাবা নাজিম উদ্দিন বলেন, আমার ছেলে সাজ্জাত হোসেন এখন আগের চেয়ে ভালো।

সে কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়িত নয়। তাঁর নামে থানায় যেসব মামলা আছে এগুলো ষড়যন্ত্রমূলক। রাব্বীকে আমার ছেলে অপহরণ করেনি। রাব্বী হয়তো নিজে থেকেই পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

সখীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জয়নাল আবেদীন আজ শনিবার সকালে বলেন, আখতারুজ্জান রাব্বীর বিষয়ে থানায় একটি হারানো জিডি হয়েছে। বাবার করা অপরণের অভিযোগের কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি। রাব্বী নিজে থেকেই হারিয়ে গেছে। তাকে খোঁজার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বিশেষ করে তার মুঠোফোনটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। ওই ফোনটি উদ্ধার করতে পারলে প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন করা সম্ভব হবে।

Please Share This Post in Your Social Media




প্রধান কার্যালয়ঃ স্কুল মার্কেট,২য় তলা, কচুয়া বাজার,সখীপুর, টাঙ্গাইল। মোবাইলঃ 01518301289; 01708067997 ইমেইলঃ Kachuaonlinenews@gmail.com ©TangailNews24 Is A Part Of KachuaOnlineNews© © All rights reserved © 2021 Tangail News
Design BY NewsTheme