শিরোনাম :
টান দিলেই উঠে যাচ্ছে নতুন সড়কের কার্পেটিং টাঙ্গাইল জেলার শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক নির্বাচিত হলেন সখীপুরের মনিরুজ্জামান চুরি ঠেকাতে জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে লাগানো হলো সিসি ক্যামেরা যুবককে অপহরণ করে বিয়ে করলেন তরুণী বাকি দুই ম্যাচ জিতলেও বাংলাদেশের সুপার টুয়েলভ অনিশ্চিত সখীপুরে পানিতে ডুবে ৮ বছরের শিশুর মৃত্যু নাগরপুরে শেখ রাসেল দিবস পালিত ঘাটাইলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক হোটেলে! চার লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি সখীপুরে শেষ দিনে চার ইউনিয়নে ১৩ চেয়ারম্যান, ১৪১ সাধারণ সদস্য,৪১সংরক্ষিত প্রার্থীর মনোনয়ন জমা বিয়ের আড়াই মাসের মাথায় ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে সখিপুরের প্রবাসীর আত্মহত্যা
বউ নিয়ে সরকারি কর্মকর্তা থাকেন পাকাঘরে, মাকে রাখেন গোয়ালে!

বউ নিয়ে সরকারি কর্মকর্তা থাকেন পাকাঘরে, মাকে রাখেন গোয়ালে!

বউ নিয়ে সরকারি কর্মকর্তা থাকেন পাকাঘরে, মাকে রাখেন গোয়ালে!
ফরিদপুরের নগরকান্দায় শতবর্ষী এক বৃদ্ধা মাকে পরিত্যক্ত গোয়াল ঘরে আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছে ওই বৃদ্ধার একমাত্র ছেলের বিরুদ্ধে। স্থানীয় প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের হস্তক্ষেপে অবশেষে ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করা হয়েছে।

জানা যায়, নগরকান্দা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের করপাড়া এলাকার রমেন মণ্ডল তার শতবর্ষী মা রাজেশ্বরী মণ্ডলকে একটি পরিত্যক্ত ঘরে তালাবদ্ধ করে আটকে রাখছেন দীর্ঘদিন ধরে। রমেন মণ্ডল উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে চাকরি শেষে সম্প্রতি অবসরে গেছেন।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, একটি পরিত্যক্ত তালাবদ্ধ ঘরে জরাজীর্ণ অবস্থায় ওই বৃদ্ধাকে রাখা হয়েছে। যেখানে আগে গরু রাখা হত, তালা খুলে দেখা গেছে ওই শতবর্ষী বৃদ্ধা ময়লা আবর্জনার ভেতর তীব্র গরমে কাতরাচ্ছে। ঘরের মধ্যে কোনো ফ্যান নেই, না পাচ্ছে ঠিকমতো খাবার, না পাচ্ছে একটু পানি। একমাত্র ছেলে ও ছেলের বউ আরাম আয়াসে আলিশান ঘরে থাকলেও সেই ঘরে জায়গা হয়নি বৃদ্ধা মায়ের। দরজার তালা খোলা মাত্রই সাংবাদিকদের দেখে হাউমাউ করে কেঁদে ওঠেন ওই বৃদ্ধা। পরে তাকে উদ্ধার করে ছেলের ঘরে নিয়ে ফ্যানের নিচে বসালে তিনি স্বস্থির নিঃশ্বাস ফেলেন।

নগরকান্দা প্রেসক্লাবের সভাপতি বোরহান আনিস বলেন, পৌরসভার করপাড়ায় এক বৃদ্ধাকে আটকে রাখা হয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে ওই বাড়িতে আমিসহ প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা যাই। সেখানে গিয়ে দেখতে পাই, ওই বৃদ্ধাকে একটি পরিত্যক্ত গোয়ালঘরে আটকে রাখা হয়েছে। আমরা সেখান থেকে ওই বৃদ্ধাকে বের করে নিয়ে আসি।
তিনি আরও বলেন, ওই বৃদ্ধা খুব ক্ষুধার্ত ছিল, তাকে তাৎক্ষণিক আম খেতে দেওয়া হয়। পরে তার ছেলেকে এবিষয়ে চাপ প্রয়োগ করলে তিনি তার ভুল স্বীকার করে মাকে আর কষ্ট দেবেন না বলে আমাদের আশ্বস্ত করেন।
এ ব্যাপারে ওই বৃদ্ধার ছেলে রমেন মণ্ডল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দরজা খোলা থাকলে বিভিন্ন দিকে চলে যায় মা। তাই আমি তাকে আটকে রাখি। আমার ভুল হয়েছে। আমি না বুঝে অনেক বড় ভুল করেছি। এখন থেকে মায়ের যত্ন নেব।

Please Share This Post in Your Social Media




প্রধান কার্যালয়ঃ স্কুল মার্কেট,২য় তলা, কচুয়া বাজার,সখীপুর, টাঙ্গাইল। মোবাইলঃ 01518301289; 01708067997 ইমেইলঃ Kachuaonlinenews@gmail.com ©TangailNews24 Is A Part Of KachuaOnlineNews© © All rights reserved © 2021 Tangail News
Design BY NewsTheme