টঙ্গীতে চাঁদাবাজির অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

চাঁদাবাজি ও অপহরণের অভিযোগে ৫৩ নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা নাদিম হায়দারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এলাকায় সে নাদিম পাওয়ার নামে পরিচিত ছিল। শনিবার ভোরে আউচপাড়া বড়দেওড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি গাজীপুরের টঙ্গী পশ্চিম থানার বড়দেওড়া মন্ডল মার্কেটের হালিম হায়দারের ছেলে। এ ঘটনায় পশ্চিম থানায় একটি চাঁদাবাজির মামলা হয়েছে।

স্থানীয় ভুক্তভোগীরা ও টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ জানায়, নাদিম হায়দার ওরফে নাদিম পাওয়ারসহ বেশ কয়েকজন যুবলীগের নাম ভাঙিয়ে বড়দেওড়া এলাকায় বিভিন্ন প্রকার হাঙ্গামা ও চাঁদাবাজি করে আসছিলেন। তাদের জন্য এলাকায় সাধারণ মানুষ ব্যবসা বাণিজ্য ও বাড়িঘর নির্মাণ করতে পারতেন না। কোন কিছু করতে হলে নাদিম গ্রুপকে মোটা অংকের চাঁদা দিয়ে কাজ করতে হতো। চাঁদা না দিলে ধরে নিয়ে মারধর ও বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেখানো হতো। গত বুধবার আব্দুল জলিল রাজমিস্ত্রীকে চোখ বেঁধে অপহরণ করে নিয়ে একটি কক্ষে আটকে রাখে। এসময় নাদিম পাওয়ার ও তার সহযোগীরা রাজমিস্ত্রির কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন এবং টাকা না দিলে হাত-পা কেটে ফেলারও হুমকি দেওয়া হয় বলে সে থানায় অভিযোগ করে। নাদিম পাওয়ারের গ্রেফতারের খবরে এলাকাবাসী ও সাধারণ ব্যবসায়ীরা স্বস্তি প্রকাশ করেন