স্ত্রীকে মারধর করে চুল কেটে দেয়া সেই স্বামী কারাগারে

(জাগো নিউজ ডেস্ক)শরীয়তপুর সদর পৌরসভায় এক গৃহবধূকে (১৯) নির্যাতনের পর চুল কেটে দেয়ার অভিযোগে তার স্বামী সাদ্দাম হোসেন মোল্লাকে (৩০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (২২ মার্চ) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে রোববার (২১ মার্চ) রাত সাড়ে ১১টার দিকে শরীয়তপুর শহরের ধানুকা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার সাদ্দাম শরীয়তপুর পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের হুগলি গ্রামের আলী আহাম্মদ মোল্লার ছেলে।জানা গেছে, ২০১৯ সালের ১৩ ডিসেম্বর শরীয়তপুর পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের হুগলি গ্রামের সাদ্দামের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় ওই ভুক্তভোগীর। সাদ্দাম রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে অফিস সহায়ক হিসেবে মাস্টার রোলে কর্মরত।



বিয়ের পর থেকেই যৌতুকসহ বিভিন্ন অজুহাতে ওই গৃহবধূকে মারধর করতেন সাদ্দাম, তার বাবা আলী আহম্মদ (৬০) ও মা রোকেয়া বেগম (৫০)। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সাদ্দামের চাকরি নিয়মিত ও বাড়ি করার জন্য স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে তিন লাখ টাকা আনার জন্য চাপ দেন অভিযুক্তরা। এতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে লাঠি দিয়ে বেদম পেটানো হয়। একপর্যায়ে সাদ্দাম স্ত্রীর চুলের মুঠি ধরে দেয়ালের সঙ্গে ঠুকে দেন। এতে তিনি জ্ঞান হারান। এরপর কাঁচি দিয়ে তার চুল কেটে দেয়া হয়। পৌরসভার ৬ নম্বর হুগলি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।পরে এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা গত ৫ মার্চ সদরের পালং মডেল থানায় একটি মামলা করেন।

এ প্রসঙ্গে শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, রোববার রাতে সাদ্দামকে গ্রেফতার করা হয়। আজ তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে