সখীপুর পৌর নির্বাচনে একই রঙের পাঞ্জাবি গায়ে ‘পাঞ্জাবি’ প্রতীকে ভোট প্রার্থনা

সখীপুর পৌর নির্বাচনে একই রঙের পাঞ্জাবি গায়ে ‘পাঞ্জাবি’ প্রতীকে ভোট প্রার্থনা

নিজস্ব প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আশরাফের বিরুদ্ধে এক সঙ্গে তিনটি নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ওয়ার্ডের প্রতিদ্বন্দ্বী তিন প্রার্থী সোমবার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে এ অভিযোগ দেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আবদুল বাছেদ সিকদার (পানির বোতল প্রতীক) অভিযোগ করে বলেন, আশরাফের প্রতীক হচ্ছে পাঞ্জাবি। তিনি ভোটারদের একই রঙের পাঞ্জাবি কিনে দিয়ে গায়ে পরিয়ে শোভাযাত্রা করছেন আর ভোট প্রার্থনা করছেন। এতে নির্বাচনী আচরণ বিধির তিনটি এক সঙ্গে লঙ্ঘিত হচ্ছে।



তিনি আরও বলেন, নির্বাচনী আচরণ বিধির ১৭(ক) এ বলা হয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চিহ্ন সম্বলিত শার্ট, জ্যাকেট ফতোয়া ইত্যাদি ব্যবহার করা যাবে না। একই ধারার ‘গ’ তে বলা হয়েছে ভোটারদেরকে কোনো প্রকার উপঢৌকন, বকশিশ ইত্যাদি প্রদান করা যাবে না। নির্বাচনী আচরণ বিধির ১১ (২) এ বলা হয়েছে নির্বাচন পূর্ব কোনো প্রকার মিছিল-শোডাউন করা যাবে না।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গতকাল রোববার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কয়েকটি এলাকায় কাউন্সিলর প্রার্থী আশরাফ (পাঞ্জাবি প্রতীক) ২০-২৫জন যুবককে একই রঙের পাঞ্জাবি পরিয়ে ভোটারদের কাছে ভোট চান।

দুটি লাইনে সারিবদ্ধ ভাবে যুবকরা টিয়া রঙের পাঞ্জাবি পরে ‘শোডাউনে’ অংশ নেন। সাদা রঙের পাঞ্জাবি পরে আশরাফ শোডাউনের নেতৃত্ব দিয়ে ভোটারদের কাছে ভোট চান। এভাবে ২০-২৫জন যুবককে একই রঙের পাঞ্জাবি পরিয়ে নিয়ে ভোট চাওয়ায় এলাকায় তা আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেয়। এলাকার অনেক যুবক পাঞ্জাবির আশায় আশরাফের সঙ্গে যোগাযোগ করে বলে অভিযোগ রয়েছে।



নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক একজন প্রতিদ্বন্দ্বী কাউন্সিলর প্রার্থী বলেন, আশরাফ ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কমপক্ষে ২০০জনকে বিভিন্ন রঙের একটি করে পাঞ্জাবি উপহার দিয়েছেন। যা নির্বাচন বিধিবহির্ভূত।
এ বিষয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী আশরাফ বলেন, একটি ক্লাবের কিছু যুবকদের সঙ্গে নিয়ে ভোট চেয়েছি তবে কোনো শোভাযাত্রা করিনি ও ওই যুবকদের আমি পাঞ্জাবি কিনেও দেইনি। তাঁরা নিজেদের টাকায় ওই পাঞ্জাবি কিনেছেন। ওই ক্লাবের সব সদস্য আমার ভক্ত। ওরা স্বেচ্ছায় আমার নির্বাচন করছে।



উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার আতাউল হক বলেন, অভিযোগ পেয়েই আশরাফকে মৌখিতভাবে সর্তক করে দেওয়া হয়েছে। এরপর এভাবে ওই প্রার্থীর বিরুদ্ধে একই রঙের পাঞ্জাবি পরে শোডাউন করে ভোট চাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media




প্রধান কার্যালয়ঃ স্কুল মার্কেট,২য় তলা, কচুয়া বাজার,সখীপুর, টাঙ্গাইল। মোবাইলঃ 01518301289; 01708067997 ইমেইলঃ Kachuaonlinenews@gmail.com ©TangailNews24 Is A Part Of KachuaOnlineNews© © All rights reserved © 2021 Tangail News
Design BY NewsTheme