সখীপুরে প্রতিবেশীর দেওয়া বাঁশের বেড়ায় অবরুদ্ধ পরিবার

টাঙ্গাইলের সখীপুরে প্রতিবেশীর বাঁশের বেড়ায় অবরুদ্ধ হয়ে আছে এক প্রবাসীর পরিবার। দীর্ঘ তিন মাস ধরে স্বাভাবিক চলাচল করতে পারছে না বলে জানায় ওই পরিবার। উপজেলার বহেড়াতৈল ইউনিয়নের আমতৈল গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ি ঘেঁষা প্রতিবেশীদের আবাদী জমির চারপাশ বাঁশ দিয়ে বেড়া দেওয়ায় বন্ধ হয়ে আছে প্রবাসী মজিবর রহমানের বাড়ি যাওয়ার পথ।



এতে স্বাভাবিক চলাচল করতে না পারায় ওই প্রবাসীর স্ত্রী, সন্তান ও মা-বাবা অবরুদ্ধ হয়ে আছে। অন্যের বাড়িতে মোটরসাইকেলসহ অন্যান্য যানবাহন রেখে বাঁশের বেড়া ডিঙিয়েই বাড়িতে যাচ্ছে হচ্ছে তাদের।
বিষয়টি স্থানীয় ইউপি মেম্বার, গন্যমান্য ব্যক্তি ও ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে জানালেও তারা এখনও কোন মীমাংসা দিতে পারেনি বলে জানায় ওই মজিবরের বৃদ্ধ বাবা জালাল উদ্দিন। তিনি বলেন, যারা পথ বন্ধ করে দিয়েছে তারা আমার আপন ভায়ের সাত ছেলে ও ভাতিজা।
ওই রাস্তার জন্য জমির পরিবর্তে জমি দিতে চাই। তবুও তারা রাজি হতে চায় না।



মজিবর রহমানের স্ত্রী রিনা আক্তার বলেন, স্বামী বিদেশ থাকায় নিজেই বাজার ঘাট করতে বাঁশের বেড়া ডিঙিয়েই বাজারে যাই। বেড়া খুলে দিতে বললে ওরা সাত ভাই ও ভাতিজা আমাদের প্রতি রেগে আসে।

চেয়ারম্যান, মেম্বারদের কাছে একাধিকবার বলা হয়েছে কিন্তু এখনো তারা সমাধান দিতে পারে নাই।
ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফেরদৌস বলেন, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। জানতে পারছি জমি নিয়ে এই সমস্যা। ওরা আমার কাছে আসলে পরিষদের মেম্বারকে বলেছি বিষয়টি দ্রুত মীমাংসা করার জন্য। তারপর কী অবস্থা আমাকে কেউ জানায়নি।



প্রতিবেশী ইলিয়াছ বলেন, ওই বাড়িতে যাওয়ার জন্য ম্যাপে কোন রাস্তা নেই। এটা আমাদের রেকর্ডকৃত সম্পত্তি, আবাদী জমি তাই এখানে আম গাছ লাগিয়ে বেড়া দিয়েছি।
(সজল আহমেদ,বাংলাদেশ প্রতিদিন)

error: Content is protected !!