গ্রুপিং বন্ধে আওয়ামী লীগ নেতাদের হুঁশিয়ার

এবার অন্তঃকোন্দল নিয়ে বিপাকে আওয়ামী লীগ। তৃণমূলের সব পর্যায়ে দ্বন্দ্ব নিরসনে তৎপরতা বাড়িয়েছেন কেন্দ্রের নেতারা। স্বজনপ্রীতি ও গ্রুপিং বন্ধে সবাইকে হুঁশিয়ার করেছেন। বলেছেন, না হলে নরসিংদী ও সিরাজগঞ্জের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মত পরিণতি হবে।

টানা ১২ বছর ধরে ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ। দলের এই সুদিনে সক্রিয় সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা। এরই সূত্র ধরে বিভিন্ন পর্যায়ে তৈরি হয়েছে খণ্ড খণ্ড গ্রুপ। আর আধিপত্য বিস্তারের জেরে প্রায়ই হচ্ছে সংঘর্ষ।



এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে সম্প্রতি নরসিংদী ও সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। নেতারা বলছেন, এই অন্তঃকোন্দল সংগঠনকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে বাধা হয়ে দাড়াচ্ছে উন্নয়ন কাজে।

কেন্দ্রীয় নেতারা বলছেন, প্রতিযোগিতাকে দল স্বাগত জানালেও রেষারেষি প্রত্যাশিত নয়। বিবদমান সব ইউনিট নিয়ে কাজ করছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা।



আলোচনার মাধ্যমে অনেক এলাকার দ্বন্দ্ব নিরসন হয়েছে বলে জানালেন নেতারা। তাদের হুঁশিয়ারি, এ ব্যাপারে কেউ অসহযোগিতা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যে কোনো নির্বাচনে জয় পেতে ঐক্যবদ্ধ থাকার বিকল্প নেই বলে মনে করেন নেতারা। এছাড়া উন্নয়ন অব্যাহত রাখতেও প্রয়োজন সামষ্টিক চেষ্টা।

(ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন)

error: Content is protected !!