পা দিয়ে রক্তের ব্যাগ দোলাচ্ছিলেন টেকনোলজিস্ট! সমালোচনার ঝড়

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ক্যানসারে আক্রান্ত এক নারীকে রক্ত দিচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবক আসলাম। আর সেই রক্তের ব্যাগ হাতের বদলে পা দিয়ে দোলাচ্ছেন সিনিয়র মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট জাহেদুল ইসলাম- এমন একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এ ঘটনায় সাধারণ মানুষের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। নেটিজেনদের অনেকে সমালোচনাও করছেন। বলছেন, একজন সিনিয়র স্বাস্থ্যকর্মীর এ ধরনের আচরণ মানবিক ও শোভনীয় মনে হচ্ছে না।



মঙ্গলবারের এ ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছে বিনামূল্যে রক্তদান করা স্বেচ্ছাসেবী বিভিন্ন সংগঠন। বুধবার দুপুরে মাহমুদুল হাসান মামুন স্মৃতি সংসদ নামে একটি সংগঠন লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের সামনে এর প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে।

এতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি শাওন খান, সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাব্বি, তাপস অধিকারী।



বক্তারা দাবি করে বলেন, রক্তের ব্যাগে পা দেওয়ার ঘটনায় জাহেদুল ইসলামকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে এ রকম কাজ করার সাহস আর কেউ না পায়।

তারা বলেন, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট জাহেদুল শহরে একটি প্যাথলজির মালিক। তার ইসলাম প্যাথলজিতে না গেলেই তিনি রোগীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন। অনেকের অভিযোগ তিনি প্রায়ই সদর হাসপাতালে রোগীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন।



সদর হাসপাতালের ওই ক্যানসার আক্রান্ত নারী আপনপাড়া এলাকার শিরিন বেগম। তার ছেলে সাদিকের প্রায়ই মায়ের জন্য রক্ত সংগ্রহ করতে হয়। সমকালকে সাদিক বলেন, মায়ের জন্য ‘ও’ নেগেটিভ রক্তের বিশেষ প্রয়োজন। প্রায়ই আমি রক্ত সংগ্রহ করি। মঙ্গলবার সকালে শহরের নবীনগর এলাকার স্বেচ্ছাসেবী আসলাম রক্ত দিতে আসেন। সেসময় রক্তের ব্যাগটিতে পা দিয়ে দোলাচ্ছিলেন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট জাহেদুল ইসলাম।

বিষয়টি জানতে জাহেদুল ইসলামের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি। এমনকি খুদে বার্তা দিয়েও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।



লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সিরাজুল ইসলাম বলেন, রক্তের ব্যাগটি এসময় দোলাতে হয়। তিনি হাতের বদলে পা দিয়ে কাজটি করেছেন। তবে এ রকম অশোভন কাজ করার জন্য প্রথমে তাকে মৌখিকভাবে সতর্ক করা হযেছে। পরে বুধবার তিনদিনের সময় দিয়ে তাকে লিখিতভাবে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

error: Content is protected !!