উরুগুয়ের বিপক্ষে ২-০ গোলের দাপুটে জয়ে শীর্ষস্থান ধরে রাখলো ব্রাজিল

উরুগুয়েকে ২-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ব্রাজিল। এই জয়ে চার ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে শীর্ষস্থান ধরে রাখলো পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

ইনজুরি আর কোভিডে লণ্ডভণ্ড ব্রাজিল দলটা। নেইমার-কৈতিনিয়ো-ক্যাসেমিরোসহ দলের প্রায় ৭ ফুটবলার মাঠের বাইরে। প্রতিবেশি দেশ উরুগুয়ের বিপক্ষে তাদের মাটিতে মাঠে নামাটা মোটেও সহজ ছিল না তাদের।



ম্যাচ শুরুর ৫ মিনিটে দুই দলের এমন আক্রমণ উত্তেজনার আভাস দিচ্ছিল। তবে ম্যাচের বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যেনো ঘরের মাঠে নিজেদের হারিয়ে ফেলছিল উরুগুইয়ানরা। বিপরীতে ছন্দময় ফুটবল খেলতে থাকে ব্রাজিলিয়ানরা।

এই ম্যাচে জয় পেলেই টানা ১২ ম্যাচ উরুগুয়ের বিপক্ষে না হারার রেকর্ড গড়বে ব্রাজিল। সেই হাতছানির স্বাদ পেতেই কিনা ম্যাচের ৩৪ মিনিটে এগিয়ে নেন আর্থার। য্যুভেন্তাস মিডফিল্ডারের জোড়ালো শট উরুগুয়ের ডিফেন্ডারের হোসে হিমিনেসের পা ছুঁয়ে দিক বদলালে কিছুই করার ছিল না গোলরক্ষকের।



পালটা আক্রমণ চালায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে উরুগুয়েকে আরো এক গোল দেয় সেলেসাওরা। রেনান লোদির বাড়ানো বল থেকে হেডে গোল করেন রিচার্লিসন। ২-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় দুই দল।

২০০১ সালের পর কখনো ব্রাজিলের বিপক্ষে জেতেনি উরুগুয়ে। নিজেদের মাটিতে সেই দুর্নাম ঘুঁচতে বিরতির পর উঠে পড়ে লাগে দিয়াগো গডিন-লুকাস টোরেইরারা। কিন্তু দলের অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার লুই সুয়ারেজ করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তার অভাবটা ঠিকভাবে পূরণ করতে পারছিল না কেউ।



বিপদ বাড়ে ৭১ মিনিটে। দলের আরেক ফরোয়ার্ড এডিনসন কাভানি রিচার্লিসনকে ফাউল করলে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন তিনি ।

দশ জনের দলে পরিণত হলেও ম্যাচের বাকি সময় আর কোনো গোল করতে পারেনি ব্রাজিল। তাতে ২-০ গোলের জয় পাওয়ায় লাতিন আমেরিকা অঞ্চলে সবকটি ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো তিতে শিষ্যরা।

error: Content is protected !!