টাঙ্গাইলে ইউপি চেয়ারম্যানকে মারধরের ঘটনায় থানায় মামলা

টাঙ্গাইলে ঘাটাইল উপজেলার আনেহলা ইউপি চেয়ারম্যানের উপর হামলার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আনেহলা ইউপি চেয়ারম্যান তালুকদার মোহাম্মদ শাহজাহান বাদি হয়ে আজ মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) ঘাটাইল থানায় ৩ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাতনামা আরও ৭/৮ জনকে আসামী করে এই মামলা দায়ের করেন।



মামলায় ঘাটাইল পৌরসভার চান্দশি এলাকার আতাব আলীর ছেলে ও ঘাটাইল জিবিজি কলেজের সাবেক ভিপি আবু সাইদ রুবেল, উপজেলার কান্দুলিয়া এলাকার মোতাহের আলীর ছেলে জহুরুল ইসলাম (জিএম) এবং উপজেলার সরাবাড়ি এলাকার আমজাদ হোসেনের ছেলে শহিদুল ইসলামের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাতনামা আরও ৭/৮ জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলা নং ২৩৩১ (৩)১, ১০/১১/২০২০।



মামলার এজাহার ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণ থেকে জানা যায়, গতকাল সোমবার (৯ নভেম্বর) আনেহলা ইউপি চেয়ারম্যান তালুকদার মোহাম্মদ শাহজাহান মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভায় যোগদানের জন্য ঘাটাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে যাওয়ার জন্য দালানের দ্বিতীয় তলার সিঁড়িতে উপস্থিত হলে আসামীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আনেহলা ইউপি চেয়ারম্যানের উপর হামলা করে। সে সময় আনেহলা ইউপি চেয়ারম্যানকে মারপিট করে সাধারণ জখম, তার কাছে গচ্ছিত টাকা চুরি এবং প্রাণনাশের হুমকি প্রদর্শনের বিষয় মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।



মামলার বিবরণে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, আনেহলা ইউপি চেয়ারম্যানকে মারধরের পর “তুই যদি এই বিষয়ে কোনরূপ বাড়াবাড়ি করিস তাহলে তুই সহ তর পরিবারের লোকজনদের প্রাণে মারিয়া ফেলিব” বলে হুমকি প্রদর্শন করে।

আনেহলা ইউপি চেয়ারম্যান তালুকদার মোহাম্মদ শাহজাহান জানান, আবু সাইদ রুবেল, জহুরুল ইসলাম এবং শহিদুল ইসলাম গং আমাকে মারধর করে আমার কাছে রক্ষিত ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা আমার পেটে ধারালো ছোরা ঠেকিয়ে ছিনিয়ে নেয়। এ সময় আমার ডাক চিৎকারে অন্যান্যরা এগিয়ে আসলে তারা আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি প্রদর্শন করে চলে যায়।



এই বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ঘাটাইল ডট কমকে জানান, মামলার ঘটনায় পুলিশ আসামিদের গ্রেফতারের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

(ঘাটাইল ডটকম)

error: Content is protected !!