আকবর পুলিশ নামের কলঙ্ক: রায়হানের মা

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ ভারতে পালিয়ে গিয়ে খাসিয়াদের হাতে আটক হওয়া এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে দেশে ফেরত পাঠানো ও পুলিশের হাতে তুলে গ্রেফতার হওয়ার খবর শুনে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন রায়হানের মা সালমা বেগম।



রায়হানের মা সালমা বেগম বলেন. আমার ছেলে রায়হানকে যেমন নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল এভাবে যেন আর কোনও মায়ের বুক খালি না হয়। তিনি তার ছেলে রায়হানের হত্যাকারী এসআই আকবরের বিচার দ্রুত শেষ করার দাবি জানান এবং এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।এসময় তিনি বলেন, আকবর পুলিশ নামের কলঙ্ক।



সে একজন অপরাধী। আমার নিরাপরাধ ছেলেকে হত্যা করার কারণেই সে পালিয়েছে। আমরা তার ফাঁসি চাই।রায়হানের পরিবারের অভিযোগ, ফাঁড়িতে ধরে এনে রাতভর নির্যাতনের ফলে রায়হান মারা যান। ১১ অক্টোবর রাতেই রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার বাদী হয়ে নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে মামলা করেন।



এরপর থেকে প্রধান অভিযুক্ত এসআই আকবর বর্তমানে পলাতক ছিলেন। তাকে পালানোতে সহায়তা ও তথ্য গোপনের অভিযোগে ২১ অক্টোবর ফাঁড়ির আরেক এসআই হাসানকেও সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।উল্লেখ্য, গত ১০ অক্টোবর শনিবার মধ্যরাতে রায়হানকে নগরীর কাষ্টঘর থেকে ধরে আনে বন্দরবাজার ফাঁড়ি পুলিশ।



পরদিন ১১ অক্টোবর ভোরে ওসমানী হাসপাতালে তিনি মারা যান।সোমবার (৯ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কানাইঘাটের ডোনা সীমান্তে ভারতে পালিয়ে গিয়ে ভারতীয় খাসিয়াদের হাতে আটক হন এসআই আকবর। খাসিয়ারা তাকে চিনে ফেলেন এবং ধরে বেঁধে ফেলেন।

error: Content is protected !!