সখিপুরের বহেড়াতৈলে মাছ ধরার হিড়িক! চলছে প্রতিযোগিতা।

ভাতে মাছে বাঙ্গালীর পরিচয়।  হ্যা সত্যিই তাই। বর্ষা মাস শেষ হতে না হতেই মানুষজন উৎসুক হয়ে পড়েছে মাছ ধরতে। বিভিন্ন এলাকার বিভিন্ন বিল-পুকুর ইতি মধ্যে শুকানো শুরু করেছে।একার পর এক সব এলাকার মানুষ দল গঠন করে বিল এর নির্দিষ্ট জায়গা জুড়ে জাল দিয়ে বেষ্টিত করার কাজ করে চলছে।



কেউ যেন কাউকে ছাড় দিতে চায় না কারন মাছ ধরার প্রবল ইচ্ছা সবারই।বিভিন্ন প্রজাতির মাছ পাওয়া যায় এই বিলে। নকিল বিল হলো বহেড়াতৈল এর একটি ঐতিহ্যবাহী বিল।প্রতিবছর বর্ষায় হাজার হাজার পর্যটক আসে এলাকার সৈন্দর্য উপভোগ করতে।  ঠিক এবার বিভিন্ন এলাকার মানুষ আসছে মাছ ধরার জন্য। এখানে একটি প্রথা চালু রয়েছে।



মাছ মারার ক্ষেত্রে যে দল আগে এসে বাধ তৈরী করতে পারে সেই দল সেই বাধের মাছ ধরতে পারবে। তাই এলাকাবাসী ও বাহিরের মানুষও বিভিন্ন দলে বিভক্ত হয়ে নকিল বিল ও নুড়ি বিলের কিছু কিছু অংশ মাছ মারার বাধ তৈরীতে ব্যস্ত। তবে কিছু মানুষ এসেছে শখের বসে আর কিছু মানুষ সত্যিকারের প্রয়োজনে, দর্শকেরও কিন্তু কমতি নেই!



স্থানীয় একজন বাধের মালিককে মানবিক সখিপুর ফাউন্ডেশন থেকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিলো যে, এখানে প্রতি বছর কতজন মানুষ মাছ ধরতে আসে? উত্তরে আলামিন নামের একজন ব্যক্তি বলেন,  যেদিন বিল সেচে মাছ ধরা হয় সেদিন হাজার হাজার মানুষ এসে উপস্থিত হয়। কেউ আসে মাছ মারতে আর কেউ আসে মাছ দেখতে।

error: Content is protected !!