টাঙ্গাইলে ল্যাপটপ কিনে না দেওয়ায় বাবার সাথে অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা

মোঃ কাইয়ুম মিয়া: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বাবার সাথে অভিমান করে বিষ পানে তানিয়া নামের (১২) বছরের কিশোরী আত্মহত্যা করেছে। বুধবার সকালে উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের বেগম দূল্যা গ্রামের দক্ষিণ পাড়ায় এ ঘটনাটি ঘটে।



পারিবারিক সূত্র মতে জানা যায়, তিন বোনের মধ্যে তানিয়া ছিল মেজো।বড় বোনকে সেলাই মেশিন কিনে দেন বাবা। সে জন্য তানিয়া বায়না ধরে তাকে একটা ল্যাপটপ কিনে দেওয়ার দিতে।

বাবা কহিনুর এ প্রতিনিধিকে বলেন, আমি এক জন কৃষক । এই মূহুর্তে ল্যাপটপ কিনে দেওয়ার মতো সামর্থ্য ছিলোনা।



তবে তানিয়াকে বলেছিলাম পরে কিনে দেবো। তাই তানিয়া আমার সাথে অভিমান করে কৃষি ক্ষেতে ব্যবহৃত বিষ পান করে। বিছানার পাশে বিষের বোতল দেখে বুঝতে পারি সে বিষ পান করেছে। মঙ্গলবার রাতেই তাকে কুমুদিনী হাসপাতালে নেওয়া হলে আজ সকাল ১০টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।



এ ব্যাপারে ভাতগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো.আজাহারুল ইসলাম বলেন, মৃত্যুর সংবাদ আমি জানতে পেরেছি।এ ক্ষেত্রে আইনের কোন জটিলতা নেই। তাই জানাযা শেষে সামাজিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।

(নিউজ টাঙ্গাইল)

error: Content is protected !!