ছাত্রকে শেকল দিয়ে বেঁধে ৩ দিন ধরে নির্যাতন, মাদরাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলায় ১১ বছর বয়সী এক ছাত্রের ওপর পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে কাদিমপাড়া বুড়ো দেওয়ানী হাফিজিয়া মাদরাসার শিক্ষক মো. পিয়ারুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ রোববার সকালে ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ নাসির উদ্দিন বলেন, আদালত আজ পিয়ারুল ইসলামকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। গতকাল তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।



মামলায় অভিযোগ করা হয়, কিছু দিন আগে আটঘড়িয়া উপজেলার বাঁচামরা গ্রামের ওই ছাত্র মাদরাসা থেকে পালিয়ে তার খালার বাড়িতে চলে যায়। এই অপরাধে মাদরাসার আরবি ভাষার শিক্ষক পিয়ারুল ইসলাম তাকে লোহার শেকল দিয়ে বেঁধে বেত দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। তিন দিন ধরে এই নির্যাতন চলে। নির্যাতনের এক পর্যায়ে মেঝেতে থুতু ফেলে চেটে তুলতে বাধ্য করেন পিয়ারুল। গতকাল এক সুযোগে ওই ছাত্র গ্রামবাসীর কাছে সাহায্য চাইলে তারা থানায় অভিযোগ করেন।



শেখ নাসির উদ্দিন আরও বলেন, ভুক্তভোগী ছাত্রের বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। তিনি অভিযোগ করেছেন, আগেও তার ছেলে মাদরাসায় নির্যাতনের শিকার হয়েছে। যে কারণে সে পালিয়ে খালার বাড়িতে গিয়েছিল। এবারের নির্যাতনে সে ট্রমায় রয়েছে। তাকে বাড়ি চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

(জাগো নিউজ ডেস্ক)

error: Content is protected !!