নির্যাতনের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়া জঘন্য ঘটনা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, ‘নোয়াখালীতে নারী নির্যাতনের পর ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়া এক জঘন্য ঘটনা। আমরা তথ্য পাওয়ার সাথে সাথে ব্যবস্থা নিয়েছি। ইতিমধ্যে অপরাধীদের প্রায় বেশির ভাগকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’



এই নারী নির্যাতনের ঘটনায় আইন অনুযায়ী সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, সিলেট এমসি কলেজের ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সব অপরাধীকে গ্রেপ্তার করেছে। নোয়াখালী ও এমসি কলেজের ঘটনায় নির্ভুল তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া হবে, যাতে আসামিরা সর্বোচ্চ শাস্তি পান।



নোয়াখালীর ঘটনা এক মাস আগের হলেও এত পরে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা যখনই তথ্য পেয়েছি, তখনই ব্যবস্থা নিয়েছি। এসব ঘটনা অনেক সময় ভুক্তভোগী জানাতে চায় না। তারপরও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জানার সাথে সাথে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’

ধর্ষণের ঘটনা বিচারহীনতার কারণে ঘটছে কি না, এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, প্রতিটি ঘটনায় সঙ্গে সঙ্গে বিচার হচ্ছে। এখানে বিচারহীনতার কোনো বিষয় নেই। যতগুলো ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, তা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান আসাদুজ্জামান খান।



গত সেপ্টেম্বর মাসের শুরুর দিকে বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নে এক নারীকে (৩৭) বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। দুর্বৃত্তরা এ ঘটনার ভিডিও চিত্র ধারণ করেন। পরে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
অন্যদিকে গত ২৫ সেপ্টেম্বর সিলেটে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে যাওয়া তরুণীকে তুলে নিয়ে এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

error: Content is protected !!