সুপার কাপ চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ

এক বছরে পাঁচ ট্রফি জিতে বার্সেলোনার রেকর্ডে ভাগ বসালো বায়ার্ন মিউনিখ। জার্মান সুপারকাপে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে বাভারিয়ানদের জয় ৩-২ গোলে। এ নিয়ে অষ্টম জার্মান সুপার কাপ জিতল ফ্লিকের দল। দারুণ মৌসুম পার করায় ছেলেদের লড়াকু মানসিকতার প্রশংসা করেছেন কোচ হ্যান্সি ফ্লিক। ছন্দ ধরে রাখতে চান চলতি মৌসুমেও।

২০২০ সাল। বায়ার্ন মিউনিখের জন্য যেনো সোনায় মোড়ানো। বছরে ৫ ট্রফি জমা করেছে শোকেসে। সাইকেল পূর্ণ হয়েছে জার্মান ক্লাসিকো জিতে।
আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় খেলা, হফেইনহ্যাম ধাক্কা কাটিয়ে ফর্মে বায়ার্ন। আধা ঘন্টা পেরুতেই ২ গোলের লিড। প্রথমটা তোলিসোর, অভিজ্ঞ মুলার বাড়িয়েছেন ব্যবধান। ডর্টমুন্ড সমর্থকরা ততক্ষণে হারের ব্যবধান নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে।

ডর্টমুন্ড ঘুরে দাড়িয়েছে সাহস রেখে। সমতা ফিরিয়ে ম্যাচও জমিয়েছে। বিরতির আগে এক গোল শোধ দিয়ে ম্যাচে রাখেন ব্র্যান্ডট। আর দ্বিতীয়ার্ধে সমতা ফেরাতে খুব একটা সময় নেননি হালান্ড।
আবারও ম্যাচে বড় প্রভাব ম্যানুয়েল নয়্যারের। পার্থক্য বোধহয় ওখানেই। বায়ার্ন গোলকিপারের দুর্দান্ত সেভ আবারও বাচিয়ে দিয়েছে, দিয়েছে জয়ের রসদ।
অতিরিক্ত সময়ের অপেক্ষায় থাকে নি বায়ার্ন, অপেক্ষায় রাখেননি কিমিখ। ম্যাচ উইনিং গোল করেছেন ৮২ মিনিটে।
বায়ার্ন মিউনিখের কোচ হ্যান্সি ফ্লিক বলেন, ছেলেরা অসাধারণ কীর্তি গড়েছে। আমি ট্যাকটিকস শিখিয়ে দিলেও পারফর্ম তো ওদেরই করতে হয়। মাঠে যা করে দেখিয়েছে তা দেখে সত্যিই আমি অভিভূত।

৩-২ গোলের জয়, বায়ার্নকে নিয়ে গেছে অন্য অবস্থানে। বছরে পাঁচ ট্রফি’র যে রেকর্ড ছিল বার্সেলোনার, তাতে ভাগ বসিয়েছে বাভারিয়ানরা।

error: Content is protected !!