ভাবমূর্তি সংকটে ছাত্রলীগ! সংগঠনের দায় মানছেন না নেতারা

নানা অভিযোগে সংগঠনের শীর্ষ দুই নেতাকে অব্যাহতি দেয়ার পরও ভাবমূর্তি ফিরছে না ছাত্রলীগের। বুয়েটের আবরার হত্যা ও সিলেটে গৃহবধু ধর্ষণের ঘটনায় আবারো ভাবমূর্তি সংকটের মুখে পড়েছে সংগঠনটি। তবে একে সংগঠনের দায় মানছেন না নেতারা দেখছেন সামাজিক অবক্ষয় হিসেবে।

চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অভিযোগে গত বছর ছাত্রলীগের শীর্ষ পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয় রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও গোলাম রাব্বানীকে। ধারণা করা হয়েছিলো এমন শাস্তির পর সংগঠনের সব পর্যায়ের নেতা-কর্মী সাবধান হবেন।অথচ তাদেরকে সরিয়ে দেয়ার ২৪ দিনের মাথায় বুয়েটে শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার সঙ্গেও জড়ায় ছাত্রলীগের নাম। এবার সিলেট এমসি কলেজে গৃহবধু ধর্ষণেও অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের কয়েক নেতার বিরুদ্ধে।

সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নের বিষয়টিকে কিভাবে দেখছেন ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতারা?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, ঘটনাটা খুবই নিন্দনীয়। অপরাধীদের দায় সংগঠনের নয়। সামাজিক অবক্ষয়ের ফল।

যোগ্য নেতৃত্বের অভাব, সংগঠনের ভাবমূর্তি নষ্টের প্রধান কারণ বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য।

আর শিক্ষাবিদ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর মতে, যোগ্য নেতৃত্ব তৈরিতে প্রয়োজন নিয়মিত ছাত্র সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠান। তা হচ্ছে না বলেই ছাত্রসংগঠনের কর্মীরা বিপথে যাচ্ছে।

তার মতে রাজনীতিতে একচেটিয়া প্রভাব ছাত্রলীগের ভাবমূর্তিকে সংকটাপন্ন করছে।

(জাগো ডেস্ক)

error: Content is protected !!