বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র আ.লীগের সালমা

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভার উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী সালমা আক্তার শিমুল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি প্রয়াত মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমনের সহধর্মিণী।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার এএইচ এম কামরুল হাসান আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী সালমা আক্তার শিমুলকে মেয়র হিসেবে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করেন।

জানা যায়, গত (৭ সেপ্টেম্বর) মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র পদে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়। তফসিল ঘোষনার পর গত (৮ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় আওয়ামী লীগ দলের সাতজন সম্ভাব্য প্রার্থী নিয়ে জরুরী সভা করে উপজেলা আওয়ামী লীগ। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে প্রয়াত মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমনের সহধর্মিণী সালমা আক্তার শিমুলকে দলের একক প্রার্থী হিসেবে মনোনিত করতে কেন্দ্রে সুপারিশ করা হয়।

দলের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনক্রমে শিমুল আওয়ামী লীগের প্রার্থী মনোনিত মেয়র প্রার্থী হন।

গত (১৩ সেপ্টেম্বর) মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে শিমুল ছাড়া আওয়ামী লীগ বা অন্য কোন দলের কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। গত (১৪ সেপ্টেম্বর) শিমুলের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষনার পর থেকেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়। মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) রিটার্নিং অফিসার এএইচএম কামরুল হাসান শিমুলকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র হিসেবে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষনা করেন।

এদিকে সালমা আক্তার শিমুল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য একাব্বর হোসেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু প্রমুখ।

টাঙ্গাইল জেলা নির্বাচন অফিসার এএইচএম কামরুল হাসান বলেন, উপনির্বাচনে কোন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী সালমা আক্তার শিমুলকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র ঘোষণা করা হয়।

উল্লেখ, গত (১১ ফেব্রুয়ারী) মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমন অসুস্থ হয়ে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার মৃত্যুতে গত (১ মার্চ) মেয়র পদটি শুন্য ঘোষণা করে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

(মির্জাপুর সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-

error: Content is protected !!