টাঙ্গাইলে দুধে পানি মিশিয়ে বিক্রি! ৬ জনকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

টাঙ্গাইলের বাসাইলে ১৭ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় বাসাইল বাজারস্থ দুধের বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় দুধে পানি মিশিয়ে বিক্রির অপরাধে ৬ জন বিক্রেতাকে বাংলাদেশ ভোক্তা সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪১ ধারায় মামলা দায়ের করে তাৎক্ষণিক ভাবে ৪৫০০ টাকা জরিমানা করানো হয়।

বাসাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শামছুন নাহার স্বপ্না ভ্রাম্যমান আদালতের কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এ সময়ে বাসাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মোঃ নাজিম উদ্দিন বাজারে বিক্রির জন্য আগত দুধ পরিক্ষা করেন এবং পানি মিশ্রিত প্রায় ৪০ লিটার দুধ জব্দ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন বাসাইল উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক সাইদুল ইসলাম দিপু, পৌর শাখার সভাপতি জুবদিল খান, উপজেলা শাখার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক শরীফুজ্জামান, সমাজ কল্যান সম্পাদক আরিফুল ইসলাম ও শিশির প্রমুখ।

অভিযুক্ত দুধ বিক্রেতারা হলেন, ্আদাজান গ্রামের লাল মিয়া, ফুলকি গ্রামের রতন ঘোষ, কাঞ্চনপুর গ্রামের আব্দুল খালেক, বালিয়া গ্রামের মহাদেব, হালুয়া পাড়া গ্রামের শহিদ মোল্লা এবং কালিশ গ্রামের স্বপন মিয়া।

উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, বাসাইল শাখার পক্ষ হতে ১৫ সেপ্টেম্বর বাসাইল বাজারে দুধে পানি মেশানো বন্ধ করার দাবিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি চিঠি প্রদান করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ১৭ সেপ্টেম্বর এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামছুন নাহার স্বপ্না বলেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, বাসাইল শাখার পক্ষ হতে ১৫ সেপ্টেম্বর বাসাইল বাজারে দুধে পানি মেশানো বন্ধ করার দাবিতে আমরা একটি চিঠি পাই এবং বাজার মনিটরি কার্যক্রমের অংশ হিসাবেও আজ এই অভিযান পরিচালনা করি। যা ভবিষ্যতেও অবহ্যত থাকবে।

পরে পানি মেশানো ৪০ লিটার দুধ কর্তপক্ষের আলোচনা সাপেক্ষে স্থানীয় দুটি এতিমখানা পৌছে দেওয়া হয়।

(টাঙ্গাইল টাইমস,শরিফুজ্জামান)

error: Content is protected !!