টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র হওয়ার পথে শিমুল

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র পদে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী সালমা আক্তার শিমুল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে রয়েছেন। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক প্রয়াত মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমনের সহধর্মিণী।

মেয়র পদে শিমুল ছাড়া অন্য কেউ মনোনয়নপত্র জমা না দেয়ায় এই সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে বলে উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে।



সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বাছাইয়ে বৈধ হওয়া এবং ২১ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহরের দিন পার হওয়ার পরই এই ঘোষণা হবে বলেও সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

রোববার সকালে শিমুল দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার মো. কামরুল হাসানের কাছে তার মনোনয়নপত্র জমা দেন। তার সঙ্গে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মীর এনায়েত হোসেন মন্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহামুদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার শিফা, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক শামীম আল মামুনসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

১১ ফেব্রুয়ারি মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমনের মৃত্যুতে ১ মার্চ এই পদটি শূন্য ঘোষণা করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। গত ৭ সেপ্টেম্বর মির্জাপুর পৌরসভার উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরদিন সোমবার থেকে মনোনয়নপত্র বিক্রি শুরু হয়।

৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টুর কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় মেয়র পদে সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা শহীদুর রহমান, অ্যাডভোকেট মোশারফ হোসেন মনি, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরহাদ উদ্দিন আছু, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবুল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক শামীম আল মামুন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাজহারুল ইসলাম শিপলু দলের কাছে দলীয় মনোনয়ন চান।

পরে নেতৃবৃন্দ তাদের অনুরোধ করে প্রয়াত মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমনের সহধর্মিণী সালমা আক্তার শিমুলকে দলের একক প্রার্থী হিসেবে মনোনিত করেন। দলীয় সিদ্ধান্তে শিমুলকে একক প্রার্থী সুপারিশ করে কেন্দ্রে চিঠি পাঠানো হয়।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনের পর শিমুল আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত হন।

এদিকে তিনজন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী সালমা আক্তার শিমুল ছাড়া অন্য কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। এ অবস্থায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় শিমুলের মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথ সুগম হলো।

সোমবার বাছাইয়ে মনোনয়নপত্র বৈধ বলে বিবেচিত এবং ২১ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহরের তারিখ পার হওয়ার পরই তা চূড়ান্ত হবে বলে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার মো. কামরুল হাসান জানিয়েছেন।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বাছাইয়ে বৈধ হওয়া এবং ২১ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহরের দিন পার হওয়ার পরই এই ঘোষণা হবে বলেও সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

error: Content is protected !!