টাঙ্গাইলে ১০ বছরের শিশু শান্তাকে ওড়না পেঁচিয়ে হত্যার পর ধর্ষণ করে মাজেদুর

টাঙ্গাইলে ১০ বছরের শিশু শান্তাকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যার পর ধর্ষণ করা হয় বলে স্বীকার করেছেন কাঠমিস্ত্রি মাজেদুর রহমান।

শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) আদালতে জবানবন্দিতে এ কথা স্বীকার করেন তিনি।

টাঙ্গাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর মোশারফ হোসেন জানান, মরদেহ উদ্ধারের পর ওই গ্রামের চার জনকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।



জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে আনোয়ার হোসেনের ছেলে মাজেদুর রহমান (২৫) শিশু শান্তাকে হত্যার পর ধর্ষণের কথা স্বীকার করেন। পরে তিনি আদালতে জবানবন্দি দিতে রাজি হন।

শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে তাকে টাঙ্গাইল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমন কুমার কর্মকার জবানবন্দি দেওয়ার পর মাজেদুরকে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

error: Content is protected !!