সখীপুরে লোকাল বয়েজ ক্লাবের সভাপতি অন্তর গ্রেফতার

সখিপুর লােকাল বয়েজ ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মনােয়ার হােসেন অন্তরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের বাসা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

পর্নোগ্রাফি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। শুক্রবার সকালে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানাে হয়েছে। জানা যায় গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে নিত্যশিল্পী সুমন আহমেদকে অপহরণ করে বনের ভেতর নিয়ে যায় মুখােশধারীরা।

সেখানে আগের পর্নোগ্রাফি মামলার বাদী সুমনকে মামলা তুলে নেওয়ার চাপ দেয় তারা। মামলা তুলে নিতে রাজি না হওয়ায় সুমনের মাথার চুল কেটে দিয়ে মুখে কালি মেখে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় সখীপুর থানায় অপহরণ ও পর্নোগ্রাফি আইনে দুইজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ছয়জনকে আসামি করে মামলা করে সুমন।

পরে পুলিশ জুনিয়র স্টার বয়েজ ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ডি.এম সুপ্তকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়। ওই মামলার তদন্তে মনােয়ার হােসেন অন্তরের সম্পৃক্ততা পাওয়ায় বৃহস্পতিবার তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সখীপুর থানার উপ-পরিদর্শক আজিজুল ইসলাম বলেন, মামলার তদন্তে মনােয়ার হােসেন অন্তরের জড়িত থাকার সত্যতা পাওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার নামে থানায় আরাে দুটি মামলা রয়েছে।




তাকে পাঁচদিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানাে হয়েছে। সখীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আমির হোসেন বলেন, লোকাল বয়েজ ক্লাব ও স্টার বয়েজ ক্লাবের আধিপত্য বিস্তারের বিরােধের জের ধরে নানা অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে।

মামলার তদন্তে অন্তরের নাম উঠে আসায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে অন্তরের পরিবারের সদস্যদের দাবি নৃত্যশিল্পী নির্যাতনের ঘটনায় সে জড়িত নয়।

error: Content is protected !!