ঘরের সিঁদ কেটে ঘুমন্ত শিশুকে তুলে নিয়ে ধর্ষণঃ থানায় মামলা

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলায় বসতঘরের সিঁদ কেটে বাবা-মায়ের সঙ্গে ঘুমন্ত অবস্থায় ছয় বছরের এক শিশুকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে।

সোমবার (০৭ সেপ্টেম্বর) রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের সাঁতারপুর গ্রামের আলী হোসেনকে (৫০) আসামি করে এ মামলা দায়ের করেন। তবে এখন পর্যন্ত আলী হোসেনকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

সোমাবার ভোরে করিমগঞ্জ উপজেলার কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের সাঁতারপুর গ্রামের দরিদ্র রিকশাচালকের ঘরের সিঁদ কেটে ছয় বছরের শিশুকন্যাকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। সকালে বাড়ির পাশের একটি ধানক্ষেত থেকে আহত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর পালিয়ে যান অভিযুক্ত আলী হোসেন। শিশুটি বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতির দিকে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

পুলিশ জানায়, রোববার রাতে শিশুটিসহ অন্য তিন সন্তানকে নিয়ে নিজের ঘরে ঘুমিয়েছিলেন বাবা-মা। সোমবার ভোরে ঘুম থেকে উঠে বসতঘরের তিন দিকে সিঁদ কাটা দেখতে পান। এ সময় শিশুটিকে বিছানায় পাওয়া যায়নি। খোঁজাখুঁজির পর বাড়ির পাশে একটি ধানক্ষেতে পাওয়া যায় শিশুটিকে। এ সময় সেখান থেকে পালিয়ে যেতে দেখেন একই গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে আলী হোসেনকে। আলী হোসেন শিশুটির পাড়া সম্পর্কিত দাদা। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। অভিযুক্ত আলী হোসেনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

error: Content is protected !!