কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে তরুণীকে গণধর্ষণ! গ্রেপ্তার ৫

(আতিক হাসান)নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ শেষে রাতে বাড়ি ফেরার পথে এক তরুণী গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ তিন ঘণ্টার মধ্যে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে।

বুধবার দিনগত রাত একটার দিকে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার পাগলা খেয়াঘাট এলাকায় ওই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন সময় নিউজকে বলেন, কেরানীগঞ্জের পানগাও এলাকার ১৮ বছর বয়সী এক তরুণী ফতুল্লার পঞ্চবটি এলাকায় বিসিক শিল্পনগরীতে পোশাক কারখানায় কাজ করে।

গত বুধবার কাজের চাপ থাকায় ওভারটাইম শেষে রাত ১২ টার দিকে কারখানা ছুটি হয়। ছুটি শেষে ওই মেয়েটি কারখানার এক সহকর্মীসহ ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা-যোগে বাসার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। তারা পাগলা খেয়াঘাটে নৌকার জন্য অটো চালকসহ অপেক্ষা করতে থাকে। এসময় এক বখাটে ওই তরুণীকে দেখে মুঠোফোনে অন্যদের ডেকে আনে। পরে বখাটে ছয় যুবক একত্রিত হয়ে চালককে হুমকি দিয়ে দুই তরুণীকে পাশের নির্জন স্থানে বালুর মাঠে নিয়ে যায়। পরে অটো রিকশাচালক এক তরুণীকে বাঁচিয়ে আনতে পারলেও অন্যজনকে আনতে পারেনি। রাত দেড়টার দিকে ৬ জন মিলে পোশাক কারখানার ওই কর্মীকে গণধর্ষণ করে তার মুঠোফোন ছিনিয়ে নেয়।

ওসি আসলাম আরো বলেন, এই ঘটনার পর রাত তিনটার দিকে ওই পোশাককর্মী থানায় এসে অভিযোগ দিলে পুলিশ রাতেই তিন ঘণ্টার মধ্যে অভিযান চালিয়ে পাগলা ও আলীগঞ্জ এলাকা থেকে অভিযুক্ত পাঁচজন জনকে গ্রেফতার করে। গণধর্ষণের শিকার ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার করার জন্য বৃহস্পতিবার সকালে নারায়ণগঞ্জ সদরের জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

(সময় সংবাদ)

error: Content is protected !!