টাঙ্গাইলে অসহায় ভ্যানচালকের ঘর পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে নীরিহ এক পরিবারের ঘর পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে ঘাটাইল সদর থেকে ৪০ কি.মি দূরে অত্র উপজেলাধীন সাগরদিঘী ইউনিয়নের ফুলমালিরচালা নয়াপাড়া গ্রামে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বসতবাড়ির সীমানা নিয়ে প্রতিপক্ষ রমজান আলী ও নইমুদ্দিনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে ঝগড়াঝাটি ও শত্রুতা চলে আসছে। প্রতিপক্ষের সঙ্গে একাধিকবার মারামারি মতো ঘটনাও ঘটেছে।

এ ঘটনায় শামীম মিয়া (৪৮) নামে এক ব্যাক্তি বাদি হয়ে ৪ জনকে আসামী করে টাঙ্গাইল বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যজিষ্ট্রেট আমলী আদালতে একটি মোকদ্দমা (নং- সিআর ১৫৪ তারিখ:১৪/০৭/২০) রুজু করেছেন।

মামলার বাদি শামীম মিয়া জানান, আমি একজন গরীব মানুষ। আমি ভ্যান চালিয়ে সংসার চালাই। এ অবস্থায় আমি আমার শাশুরির মৃত্যু শয্যায় থাকার খবর পেয়ে ঘরে তালা দিয়ে তাকে দেখার জন্য ৯ জুলাই আমরা পরিবারের সকলেই শশুরবাড়ি চলে যাই।

একদিন পর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে দেখি আমার ঘরটি আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।তবে নীরিহ পরিবারের এ বসত ঘরটিকে কে বা কারা পুড়িয়ে দিয়েছে তা কেউ বলতে পারেনি। তবে অভিযোগের বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পুলিশ বুরো অব ইনভেষ্টিগেশন (পিবিআই) কে নির্দেশ দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত।

জানতে চাইলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হেকমত সিকদার বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। তবে আমার মনে হয় এটি একটি পরিকল্পিত ঘটনা। কেননা এর আগে আমরা একাধিকবার শালিশ করেছি। তারা কোন শালিশ দরবার মানেনা।

এদিকে এ ঘটনায় এলাকাবাসি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, ঘটনাটি যেভাইে হোক একটি বসতঘর পুড়িয়ে দেয়া একটি ন্যাক্কার জনক ঘটনা। এটি যেই করে থাকুক সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে এর সত্যতা বের করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া দরকার।

error: Content is protected !!