বিয়ের দিন শ্বশুরবাড়ি গিয়ে নববধূ জানতে পারলেন তিনি ‘করোনা পজিটিভ

(ফাই((ফাইধুমধাম আয়োজন। বিয়ে বাড়িতে বরযাত্রীসহ প্রায় দুই শ আমন্ত্রিত অতিথি। সারা দিন আনন্দ–উৎসবে বিয়ে হয়। সন্ধ্যায় বধূবেশে বরযাত্রীদের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী দৌলতপুর উপজেলার এক গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে যান নববধূ। রাত সাড়ে ৯টার পর শ্বশুরবাড়িতে বসে জানতে পারেন, তিনি করোনা পজিটিভ। রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পুলিশ প্রশাসন থেকে তাঁকে এ তথ্য জানানো হয়।

গতকাল রোববার এমন ঘটনা ঘটেছে কুষ্টিয়ার মিরপুর পৌরসভায়। নববধূ (১৯) ও তাঁর মায়ের (৪৫) করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে।
মিরপুর উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, গত বুধবার উপজেলা থেকে করোনা পরীক্ষার জন্য ৯ জনের নমুনা পাঠানো হয়। গতকাল রোববার রাত সাড়ে নয়টায় কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা শেষে জানানো হয়, তিনজনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে দুজন হলেন মা ও মেয়ে। রাতে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, বিয়ের পর সন্ধ্যায় মেয়ে পার্শ্ববর্তী দৌলতপুর উপজেলায় শ্বশুরবাড়িতে গেছেন।আজ সোমবার মুঠোফোনে নববধূ বলেন, প্রায় দুই সপ্তাহ আগে তাঁর এক নিকট আত্মীয়ের জ্বর–কাশি হয়। তিনি ও তাঁর মা ওই আত্মীয়কে দেখতে যান। পরে নমুনা দিলে তাঁর আত্মীয়ের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। এক সপ্তাহ আগে তাঁর নিজের হালকা জ্বর আসে। ওষুধ খেয়ে তিনি সেরে ওঠেন। এর মাঝেই পারিবারিকভাবে ঈদের পরেরদিন গতকাল রোববার তাঁর বিয়ের দিন ধার্য্য ছিল। গতকাল তাঁর বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।নববধূ দাবি করেন, করোনা পজিটিভ জানার পর তিনি আইসোলেশনে আলাদা ঘরে থাকেন। আজ সকালে তিনি বাবার বাড়িতে চলে আসেন। এখন বাবার বাড়িতে মা ও মেয়ে আলাদা দুটি কক্ষে আছেন। তাদের বাড়ি লকডাউন করে দিয়েছে প্রশাসন।

error: Content is protected !!