প্রতারক সাহেদের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত

রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এছাড়া রিজেন্টের এমডি মাসুদ পারভেজের ১০ ও সাহেদের প্রধান সহযোগী তারেক শিবলীর ৭ দিনের রিমান্ড রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

ডিবি পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকার সিএমএম আদালত তাদের এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে সকাল ১০ টার দিকে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয় থেকে আদালতের পথে রওনা হয় ডিবি। বুধবার সকালে সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত থেকে মোহাম্মদ সাহেদকে গ্রেপ্তার করা হয়। সেদিন সকালেই তাকে ঢাকায় নিয়ে আসে র‍্যাব।

পরে সাহেদকে নিয়ে উত্তরার গোপনে অফিসে অভিযান পরিচালনা শেষে তাকে ডিবির কাছে হস্তান্তর করে র‍্যাব। বিকেলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নেয়া হয়। রিজেন্ট হাসপাতালের প্রতারণার মামলাটি ডিবি তদন্ত করছে।

করোনার নমুনা পরীক্ষা না করেই রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে গত ৬ জুলাই সাহেদের মালিকানাধীন রিজেন্টের উত্তরা ও মিরপুর শাখায় অভিযান পরিচালনা করে র‍্যাব। পরে হাসপাতালের দুটি শাখা সিলগালা করে চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। সবমিলিয়ে ৫৬টি প্রতারণা মামলা হয়েছে সাহেদের বিরুদ্ধে।

প্রতারণা ও জালিয়াতি ছাড়াও সাহেদের বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র এবং জাল টাকা রাখার অভিযোগে বিভিন্ন ধারায় মামলা হয়েছে। এর মধ্যে অস্ত্র আইনের মামলায় সর্বোচ্চ সাজা রয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। এই মামলায় জামিন হওয়া কঠিন বলেও জানান আইনবিদরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

error: Content is protected !!