সখীপুরে ঈদ উপলক্ষে চালু হলো অনলাইন পশুর হাট

টাঙ্গাইলের সখীপুরে পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে অনলাইন পশুর হাট চালু হয়েছে। উপজেলা প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তর অফিসের তত্ত্বাবধানে ফেসবুকে “কোরবানির পশু ক্রয়-বিক্রয়ের অনলাইন প্লাটফর্ম, সখিপুর, টাঙ্গাইল” নামে একটি পেজ খুলেএই কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। এই ফেসবুক পেজে গরু মহিষ ওছাগলের খাসারিগণ পশুর ছবিসহ বিভিন্ন তথ্য আপলােড করছেন।

সংশ্লিষ্ট দপ্তর আশাবাদি এই অনলাইন গরুর হাটে ব্যাপক সারা পাওয়াযাবে। এই হাট নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে রয়েছেন সখীপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা।

ক্রেতারা দেশের যেকোন স্থান থেকে ঘরে বসেই পশু ক্রয় করতেপারবেন। এক্ষেত্রে ক্রেতারা পশুর ছবি দেখে মালিকের মুঠোফোনে যােগাযােগ করবেন। প্রয়ােজনে ক্রেতা স্বশরীরে খামারে গিয়েও পশুদেখতে পারেন। ক্রেতা-বিক্রেতার সমঝােতার মাধ্যমে দরদাম ঠিক করে নগদ পরিশােধের মাধ্যমে পশু ক্রয় করবেন।

তবে লেনদেনের ক্ষেত্রে ক্রেতা-বিক্রেতাকে অবশ্যই অধিক সতর্কতা অবলম্বন করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিস সূত্রে জানা যায়, সখীপুর উপজেলায়গরু, মহিষ, ছাগলসহ কোরবানি দেওয়ার যােগ্য পশু রয়েছে প্রায় ১৪
হাজার। এই উপজেলায় কোরবানির পশুর চাহিদা প্রায় সাড়ে ৭ হাজার।

উপজেলার চাহিদা মিটিয়েও প্রায় সাড়ে ৬ হাজার গরু-ছাগল উদ্বত্ত থাকবে। তবে খামারিদের জন্য আশার খবর এই যে, সখীপুরে বেশ কয়েকটি বড় পশুর হাট রয়েছে। ওইসব হাট থেকে প্রতি বছর বিপুল সংখ্যক কোরবানির পশু দেশের বিভিন্ন জেলা ও বিভাগীয় শহরে রপ্তানী হয়। তাই আশা করা হচ্ছে এ বছরও কোনাে পশু উদ্বত্ত থাকবে না।খামারিরাও পশুর ভালাে মুল্য পাবেন।

উপজেলার কালমেঘা গ্রামের খামারি মতিউর রহমানসহ বেশ কয়েকজন খামারি অনলাইন পশুর হাটের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে
বলেন, করােনা দুর্যোগে অনলাইন পশুর হাট খামারিদের পশুর ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তির পাশাপশি করােনা সংক্রমণ ঝুঁকিও কমাবে।

error: Content is protected !!