ফোনে শাজাহান সিরাজের পরিবারের সাথে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠকারী, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান সিরাজের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং জানায়, প্রধানমন্ত্রী ফোনে শাহজাহান সিরাজের স্ত্রী রাবেয়া সিরাজ ও তার মেয়ের সঙ্গে কথা বলে শোকাহত পরিবারকে সান্ত্বনা দেন এবং গভীর সমবেদনা জানান।শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী মহান মুক্তিযুদ্ধে শাহজাহান সিরাজের অবদানের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন এবং মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন শাহজাহান সিরাজ। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ক্যানসারে ভুগছিলেন।
মুক্তিযুদ্ধের আগে ১৯৭০ সালে শাহজাহান সিরাজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। তখনকার উত্তাল ছাত্র আন্দোলনের পুরোধা হিসেবে ছাত্রলীগের যে চারজনকে ‘চার খলিফা’ বলা হতো, তাদের একজন ছিলেন শাহজাহান সিরাজ। ‘চার খলিফা’র অন্য তিনজন ছিলেন ডাকসুর তখনকার ভিপি আ স ম আবদুর রব, ছাত্রলীগের তৎকালীন সভাপতি নূরে আলম সিদ্দিকী এবং ডাকসুর তৎকালীন জিএস আবদুল কুদ্দুস মাখন (প্রয়াত)।
স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রস্তুতি পর্বে ১৯৭১ সালের ৩ মার্চ ছাত্র সমাজের পক্ষে স্বাধীনতার ইশতেহার পড়েছিলেন শাহজাহান সিরাজ।
তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক। তিনি মুক্তিযুদ্ধকালীন অন্যতম ছাত্রনেতা ছিলেন। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি তিনবার জাসদের ও একবার বিএনপির মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। এছাড়া তিনি ২০০১ সালের নির্বাচনের পর খালেদা জিয়ার সরকারে বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ছিলেন।

error: Content is protected !!