ধর্ষক যখন নিজের জন্মদাতা পাষন্ড পিতা!

যেকোনো ধর্ষণই অত্যন্ত গর্হিত ও ঘৃণিত অপরাধ। আর ধর্ষক যখন হয় জন্মদাতা পিতা তখন যেন তা সকল কিছুকেই ছাড়িয়ে যায়। সামাজিক অবক্ষয়ের সকল সীমাকেই যেন অতিক্রম করে এমন মর্মান্তিক ঘটনা। গত কিছুদিন ধরেই ধর্ষিত হয়ে আসছিলো এক কিশোরী। ধর্ষক আর কেউ নয় ; তারই জন্মদাতা পিতা। এমনই এক ঘৃণ্যতম ঘটনার স্বাক্ষী সিরাজগঞ্জের বেলকুচিবাসী।

সিরাজগঞ্জের বেলকুচির হরিনাথপুর চর গ্রাম। পিতা-মাতার সংসারে ভালোই কাটছিলো এক কিশোরীর জীবন। কিন্তু অমাবস্যা নেমে আসে কয়েক বছর আগে সংসার থেকে মায়ের বিদায়ে। মাকে তালাক দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করে পিতা। তারপর থেকে পিতা আর সৎ মায়ের আশ্রয়ে বাস করছিলো সে। কিন্তু তার সে আশ্রয়ই এক দুর্বিষহ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি করে তাকে।

কিছু দিন আগে পিতার লোলুপ দৃষ্টি পরে অসহায় কিশোরীর উপর। শুরু হয় এক নির্মম নির্যাতন। ভয়ভীতি আর প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে নিজ কণ্যাকে ধর্ষণ করতে থাকে জন্মদাতা সে পাষণ্ড। বেশ কিছুদিন পারিবারিক আর সামাজিক সম্মানের কথা ভেবে সকল অত্যাচার সয়ে যায় অবলা মেয়েটি (বর্তমান বয়স ১৫)। কিন্তু অত্যাচারের মাত্রা এতোটাই বাড়তে থাকে যে বাধ্য হয়ে এবার এলাকার ইউপি চেয়ারম্যানের শরণাপন্ন হয় সে। চেয়ারম্যানের সঙ্গে গিয়ে মামলা দায়ের করে বেলকুচি থানায়।

বিষয়টি র‍্যাব-১২ এর নজরে এলে অবাক হতে হয় আমাদের। পলাতক সে পাষণ্ড পিতাকে ধরতে শুরু হয় গোয়েন্দা তৎপরতা। অবশেষে গতরাত ১০ টার দিকে (০১ জুলাই, ২০২০) ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে আটক করা হয় পিতা নামধারী এ পাষণ্ডকে (৪৫)।

এসব বর্বর -পাষণ্ডকে সামাজিকভাবে বয়কট করা হোক। সবার প্রতি এটাই আহবান র‍্যাব-১২ এর পক্ষ থেকে।

©র‍্যাব ১২

error: Content is protected !!