সকল প্রতিবন্ধকতা পিছনে ঠেলে টাঙ্গাইলে জিপিএ-৫ পেল প্রতিবন্ধী জাহানারা

জন্মগতভাবেই বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী জাহানারা। অক্ষমতাকে জয় করে সে এবার এসএসসি পরীক্ষায় পেয়েছে জিপিএ-৫। এ বছর টাঙ্গাইলের ঘাটাইল এসই পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় জাহানারা।

২০১৮ সালে একই বিদ্যালয় থেকে জেএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে জিপিএ-৩.৫০ পায় জাহানারা।

জানা যায়, প্রতিবন্ধী জাহানারা টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের পশ্চিম পাড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে। জাহাঙ্গীর আলমও বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী। জাহানারার আরেক ভাই বিজয় ও ছোট বোন তানিয়াও প্রতিবন্ধী।

জাহানারার মা বীনা বেগম বলেন, জাহানার জিপিএ-৫ পেয়েছে ঠিকই, আমরা এতে সবাই খুশি। তবে কীভাবে মেয়েকে লেখাপড়া করাবেন এনিয়ে চিন্তিত তিনি। তবে শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও মেয়ের স্বপ্ন পূরণের চেষ্টা করবেন বলে জানান মা বীনা বেগম।

তিনি বলেন, মেয়ের স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হওয়ার। কিন্তু শারীরিকভাবে সম্পন্ন না হওয়ায় মেয়েকে বোঝানো হয়, এটা তার পক্ষে প্রায় অসম্ভব। মেডিকেলে পড়তে গেলে ব্যবহারিক অনেক কাজ থাকে। তাই জাহানার এখন লেখাপড়া শেষ করে বিসিএস ক্যাডার হতে আগ্রহী।

এ ব্যাপারে ঘাটাইল এসই পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বুলবুলি বেগম বলেন, প্রতিবন্ধী জাহানারা স্কুলে থাকাকালীন আমরা তাকে অনেক সহযোগিতা করেছি। আমি জাহানারার মতো প্রতিবন্ধীসহ সকল প্রতিবন্ধীদের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি।

(রূপসী বাংলা)

error: Content is protected !!