সখীপুরে করোনা রোগী আলমের বাড়িতে ঈদ উপহার পাঠালেন চেয়ারম্যান গোলাম ফেরদৌস

সখীপুরে একমাত্র করোনা রোগী আলমের বাড়ি ও তার আশপাশের লকডাউন হওয়া ৬ টি বাড়িতে খাদ্যসহায়তা ও ঈদ সামগ্রী পাঠালেন বহেড়াতৈল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম ফেরদৌস।

গতকাল শনিবার বহেড়াতৈল গ্রামের খামারপাড়া এলাকায় দিনমজুর আলমের বাড়িতে তিনি এসব খাদ্যসামগ্রী পৌঁছান। উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকেও করোনা রোগী আলমের বাড়িতে ঈদ উপহার পৌঁছে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।
আলম বলেন, আজ আমি বেশ খুশি। বহেড়াতৈল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফেরদৌস ভাই আজ আমার জন্য একটি বড় মুরগিও পাঠিয়েছেন। চেয়ারম্যান গত বৃহস্পতিবার রাতে দুই কেজি পেঁয়াজ ১ কেজি ঢেরস, আধা কেজি কাঁচা মরিচ পাঠালেও আমার কাছে পৌঁছাতে দেরি হওয়ায় আমি চেয়ারম্যানকে ভুল বুঝেছিলাম। এখন আমার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এর প্রতি আমার কোনো রাগ, ক্ষোভ নেই।
বহেড়াতৈল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম ফেরদৌস বলেন,
বৈশ্বিক দূর্যোগকালীন “করোনা ভাইরাস” ক্রান্তিকালে বহেড়াতৈল ইউনিয়নের ৫২৫ টি হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ১০ কেজি চাল,১ কেজি পেঁয়াজ এবং ” কাটলে ধান মিলবে ত্রান” এ কর্মসূচির আওতায় আরোও ১০০ টি পরিবারের মাঝে একই পরিমান পন্যসহ মোট ৬২৫ টি ও ৩০ টি পরিবার মাঝে শিশু খাদ্য দুধ ও সুজি ইত্যাদি সামগ্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে পৌঁছে দেওয়া হয়। এছাড়া ঈদ- উল- ফিতর উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ কর্তৃক ১০০টি পরিবারের মাঝে ১ কেজি তেল, ১ কেজি চিনি, ১ কেজি চাল, ১ প্যাকেট সেমাই ও ১ টি সাবান বিতরণ করা হয়। এছাড়াও লকডাউন হওয়া ৬ টি পরিবারেও ঈদ উপহার পৌঁছে দেয়া হয়েছে।
গোলাম ফেরদৌস এর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে এর প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন। ওই মহলটি করোনা রোগী সহজ-সরল আলমকে ভুল বুঝিয়ে ভুল তথ্য সাংবাদিকের কাছে উপস্থাপন করেছিলেন। গত শুক্রবার দুই সাংবাদিক আলমের পরিবারের কাছে বিপুল পরিমান খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ায় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

তথ্যঃ লাল মাটির কন্ঠ

error: Content is protected !!