সখীপুরে শ্রমিকদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করছেন ইউএনও

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ৪ রাত ধরে ভাসমান শ্রমিকদের রান্না করা খাবার দিচ্ছেন ইউএনও আসমাউল হুসনা লিজা।

উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন সরকারি কার্যালয়ের বারান্দা, মুখতার ফোয়ারা চত্বর ও জেলখানা মোড় এলাকায় অবস্থান নেওয়া এসব ভাসমান শ্রমিকদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসমাউল হুসনা লিজার নেতৃত্বে কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তা খাবার বিতরণ কাজে অংশ নিচ্ছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. নুরুল ইসলাম জানান, এখন সখীপুরে বোরো ধান কাটার মৌসুম চলছে। রংপুর, কুড়িগ্রাম, সিরাজগঞ্জ ও ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া এলাকা থেকে কয়েক হাজার শ্রমিক সখীপুরে ধান কাটার জন্য এসেছে। এদের মধ্যে বেশির ভাগ শ্রমিকই উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে কৃষকদের ধান কাটছেন। কমপক্ষে ২০০-৩০০ শ্রমিক কাজ না পেয়ে তাঁরা উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন সরকারি কার্যালয়ের বারান্দায়, মুখতার ফোয়ারা চত্বর, জেলখানা মোড়ে আশ্রয় নিয়েছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) এরশাদুল আলম বলেন, গত ৪ দিনে কমপক্ষে আট শতাধিক লোকের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়েছে। খাবার হোটেল বন্ধ থাকায় বহিরাগত ওইসব শ্রমিকদের অনেকেই শুধু বিস্কিট, চিড়া ও পানি খেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছিল।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসমাউল হুসনা লিজা বলেন, জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নির্দেশনা মোতাবেক দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ধান কাটা শ্রমিক ও ভাসমান শ্রমিকদের মাঝে মাংস-খিচুড়ি আবার কোনদিন ডিম-খিচুড়ি রান্না করে বিতরণ করা হচ্ছে। নিজ হাতে অভুক্ত এসব শ্রমিকদের মাঝে খাদ্য তুলে দিতে পেরে অন্যরকম তৃপ্তি পাচ্ছি।

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া থেকে আসা ধান কাটা শ্রমিক আব্দুল হামিদ বলেন, সাত দিন আগে এসেছি। গত চারদিন এক কৃষকের ধান কাটার কাজ করেছি। গত তিনদিন ধরে কোন কাজ পাচ্ছি না। ইফতার করেছি বিস্কুট ও পানি দিয়ে। ম্যাডামের খিচুড়ি খেয়ে খুব তৃপ্তি পেয়েছি।

error: Content is protected !!