সখীপুরে মারা যাওয়া স্কুল শিক্ষক মাজম আলীর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ

সখীপুরের কুতুবপুর গ্রামে মৃত মাজম আলীর নমুনা রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

তার শরীরে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।
আজ সকালে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এর আগে গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নে তিনি নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় মারা যান তিনি। নতুন নিয়োগ পাওয়া ওই শিক্ষক বেতনভাতা তুলতে গত আটদিন আগে সিলেট যান। সিলেট থেকে বাড়ি ফেরার কারণে কুতুবপুরবাসী তাঁকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখেন।
কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মজিবর রহমান ফকির জানান, সিলেটে এমপিওভূক্ত একটি উচ্চবিদ্যালয়ে নতুন নিয়োগ পাওয়া ওই শিক্ষক দীর্ঘদিন ধরে হার্ডের সমস্যায় ভুগছিলেন। গত আটদিন আগে তাঁর কর্মস্থল সিলেট থেকে ফেরার কারণে এলাকাবাসী তাঁকে বাড়িতেই কোয়ারেন্টিনে রাখেন। ওই শিক্ষক নিজে থেকেই গত শনিবার সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে করোনাসন্দেহে নমুনা দিয়ে যান। কয়েকদিন ধরে তাঁর শরীরে প্রচুর পক্স (গুটি বসন্ত) দেখা দেয়। গতকাল সোমবার বাড়িতেই তাঁর মৃত্যু হয়। পরে বিকেলে পারিবারিক গোরস্থানে স্বল্প পরিসরে জানাজা শেষে তাঁকে সমাহিত করা হয়।
উপ‌জেলা স্বাস্থ্য ও প‌রিবার প‌রিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুস সোবহান ব‌লেন, ওই ব্যক্তি নিজের ইচ্ছাতেই করোনাসন্দেহে গত শনিবার হাসপাতালে নমুনা দিয়ে যান। আজ মঙ্গলবার তার মৃত্যুর একদিন পর তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

error: Content is protected !!