সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে সরকারের ৮ নির্দেশনা! না মানলে আইনি ব্যবস্থা

সরকারি প্রতিষ্ঠানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং এর সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ৮ দফা নির্দেশিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। নির্দেশিকায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং কর্মচারীদের করনীয় ও বর্জনীয় নির্ধারণ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা নিশ্চিত করার বিষয়ে উল্লেখ করা হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এসব নির্দেশনা উল্লেখ করে একটি পরিপত্র জারি করা হয়েছে। পরিপত্রে বলা হয় এসব নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
নির্দেশনার আলোকে সরকারের সকল মন্ত্রণালয় বিভাগ এবং এর আওতাধীন অধিদপ্তর, পরিদপ্তর, দপ্তর ও সংস্থার কর্মচারীকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের ক্ষেত্রে এসব নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।
নির্দেশনাগুলো হলো, সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে সরকার বা রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয় এমন কোন পোস্ট, ছবি, অডিও বা ভিডিও আপলোড, কমেন্ট, লাইক, শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
জাতীয় ঐক্য ও চেতনার পরিপন্থী কোন রকম তথ্য উপাত্ত প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকতে হবে। কোন সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগতে পারে এমন বা ধর্মনিরপেক্ষতার নীতির পরিপন্থী কোনো তথ্য-উপাত্ত প্রকাশ করা যাবেনা। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট বা আইন-শৃংখলার অবনতি ঘটতে পারে এমন কোনো পোস্ট, ছবি, অডিও বা ভিডিও আপলোড, কমেন্ট, লাইক, শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান বা অন্য কোন সার্ভিস বা পেশাকে হেয় প্রতিপন্ন করে এমন কোন পোস্ট দেয়া যাবেনা। লিঙ্গবৈষম্য এসংক্রান্ত বিতর্কমূলক কোন তথ্য-উপাত্ত প্রকাশ করা যাবে না।
জনমনে অসন্তোষ বা অপ্রীতিকর মনোভাব সৃষ্টি করতে পারে এমন কোনো বিষয়ে লেখা অডিও বা ভিডিও ইত্যাদি প্রকাশ বা শেয়ার করা যাবে না। ভিত্তিহীন অসত্য ও অশ্লীল তথ্য প্রচার করা থেকে বিরত থাকতে হবে। অন্য কোন রাষ্ট্র বা রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য কোন পোস্ট ছবি অডিও বা ভিডিও আপলোড কমেন্ট লাইক শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

পরিপত্রে এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে কনটেন্ট ও ফ্রেন্ড সিলেকশনে সকলকে সর্তকতা অবলম্বন এবং প্রয়োজনীয় ট্যাগ রেফারেন্স শেয়ার করা পরিহার করতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার বা নিজ একাউন্টের ক্ষতিকারক কনটেন্টের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মচারী ব্যক্তিগতভাবে দায়ী হবেন এবং সেজন্য প্রচলিত আইন ও বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

error: Content is protected !!