টাঙ্গাইলে স্বেচ্ছাশ্রমে দুই কি.মি রাস্তা সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে এলাকাবাসী।

আসন্ন আনারস কাটার মৌসুমকে সামনে রেখে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যাতে বাজারে আনারসসহ স্থানীয়দের উৎপন্ন অন্যান্য ফল-ফসল পরিবহণের জন্য সহজতর হয়। এই লক্ষ্যে অর্থ, শ্রম ও পরামর্শ দিয়ে এলাকার সব স্তরের লোকজন সাধ্যমতো এই উদ্যোগে শরীক হয়েছেন। ঘটনাটি বেশ আলোচনা সৃষ্টি করেছে। আলোচিত ওই গ্রামীণ সড়কটি মধুপুর উপজেলার আউশনারা ও বেরীবাইদ- এই দুই ইউনিয়নের আওতাধীন দানকবান্ধা হতে মোটের বাজার পর্যন্ত।

বৃহস্পতিবার ৩০ এপ্রিল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত স্থানীয়রা এ সংস্কার কাজে দ্বিতীয় দিনের মতো অংশ নিয়েছেন।
স্থানীয় সাধারণদের সঙ্গে এ উদ্যোগে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ ট্রাক ও কভার্ডভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়ন মোটের বাজার শাখা, কুশি শ্রমিক ইউনিয়ন, মোটের বাজার শিল্প ও বণিক সমিতি, ভ্যান রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন, কাঁচামাল আড়ৎদার সমিতির সদস্যসহ হাবিব ও ফরহাদ নামের একাধিক ইউপি সদস্য।

বুধবার (২৯এপ্রিল) থেকে শুরু হয় স্বেচ্ছাশ্রমের রাস্তা সংস্কারের কাজ। পুরো রাস্তা সংস্কার না হওয়া পর্যন্ত উদ্যোগতাগণ এ কাজ অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। এ প্রসঙ্গে আউশনারা কলেজের প্রভাষক রাজু আহমেদ বলেন, বর্ষা মৌসুমে এ অঞ্চলের অর্থকরী ফসল আনারস কাটার সময়। ঠিক এ সময়টা বনাঞ্চল ও লাল মাটির গ্রামীণ সড়কে কাঁদায় হেটে চলাচলের উপায় থাকে না। আনারস পরিবহণে চাষীদের নিদারুণ দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এই কষ্ট থেকে রক্ষা পেতে স্থানীয়দের এমন উদ্যোগ প্রশংসা পাওয়ার মতো।

স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আমির হোসেন জানান, রাস্তাটুকু সংস্কার করতে জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে বছরের পর বছর বহুবার দ্বারস্থ হয়েও কাজ না হওয়ায় এমন উদ্যোগে তিনিও শরীক হয়েছেন। শুধু এ রাস্তা নয়, আশপাশের বেশ কয়েকটি রাস্তার একই বেহাল দশা। পর্যায়ক্রমে অপরাপর রাস্তাও এভাবে সংস্কার করা হবে বলে আমি আশাবাদি।

বাংলাদেশ ট্রাক ও কভার্ডভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়ন মোটের বাজার শাখার আহবায়ক আবু হানিফ জানান, রাস্তা সংস্কারে তার প্রতিষ্ঠান যথাসাধ্য সাহায্য সহযোগিতা করছে।

আউশনারা ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা জানান, ইতোমধ্যে রাস্তায় এক কিলোমিটার ইটের সলিং করা হয়েছে। বাকিটুকু পর্যায়ক্রমে করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন।

error: Content is protected !!